Uncategorized

গাড়িতে টায়ার প্রেশার কত রাখবেন কিভাবে বুঝবেন?

এটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার। গাড়ির টায়ার  প্রেশার সবসময়ই উপযুক্ত পরিমাণ এ রাখা উচিৎ। কারণ, টায়ার প্রেশার যথাযথ না থাকলে গাড়ির মাইলেজ কমে যায়। গাড়ির ব্যালেন্স, পার্ফরমেন্স ইত্যাদি পরিবর্তন হয়ে যায়।

নিচের স্টিকারটি লক্ষ করুন, একইরকম একটা স্টিকার আপনার গাড়িতেও আছে। সাধারণত ড্রাইভার সাইডে অথবা সামনের প্যাসেঞ্জার দরজায় এই স্টিকার লাগানো থাকে। এছাড়াও গাড়ির ইউজার ম্যানুয়াল এর টায়ার প্রেশার চ্যাপ্টারে এই সম্পর্কে বিস্তারিত নির্দেশনা পাবেন।

এইবার স্টিকারের দিকে আসা যাক,

ছবিতে একটি ৫ আসন বিশিষ্ট গাড়ির টায়ার সাইজের পরিমাপের নির্দেশনা দেয়া আছে।

Front (সামনের চাকা): 225/45/R17 এটা হলো চাকার মাপ। ছবির গাড়িটির ক্ষেত্রে টায়ার প্রেশারের পরিমাণ হলো, 35 psi বা 240 kpa। টায়ার প্রেশার  সাধারণত psi অথবা  কিলো-প্যাসকেল দুই এককেই দেওয়া হয়।

Rear (পেছনের চাকা): 225/40/R17 টায়ার সাইজ। এখানে মনে রাখবেন সামনের চাকার সাইজ আর পেছনের চাকার সাইজ একই হতে হবে। এখানে টায়ার প্রেশার লাগবে 260kpa বা 38 psi। খেয়াল করবেন পেছনের চাকার প্রেশার কিন্তু একটু বেশী, তাই প্রেশার দেওয়ার সময় এটা মাথায় রাখতে হবে। কিছু গাড়ির ক্ষেত্রে সামনে-পেছনে একইরকম ও হতে পারে।

Spare: এটি হলো স্পেয়ার টায়ারের প্রেশার কত হবে সেটার নির্দেশনা। ছবির গাড়িতে সেটার কথা উল্লেখ  নেই। তবে কিছু গাড়িতে স্পেয়ার টায়ারের প্রেশারের নির্দেশনা ও দেয়া থাকে। সেক্ষেত্রে উপরের মতোই psi বা kpa হিসাবেই থাকবে।

মাঝেমধ্যে গাড়ির টায়ার প্রেশার চেক করবেন। প্রয়োজনে একটি টায়ার প্রেশার পরিমাপের যন্ত্র গাড়ির সাথে রাখতে পারেন। টায়ার প্রেশার গজ অর্ডার করতে চাইলে আমাদের পেইজের ইনবক্সে যোগাযোগ করতে পারেন অথবা উক্ত লিংক থেকে ঘুরে আসতে পারেন।

Back to list

Leave a Reply