Uncategorized

সি এন জি বা এল পি জি গাড়ির জন্য কি ক্ষতিকর?

আমাদের দেশে প্রায় ৫০-৬০% গাড়ি সি এন জি বা এল পি জি করা।  এমনকি নতুন গাড়ি কিনেই সাথে সাথে সি এন জি বা এল পি জি তে কনভার্ট করে নেয়। আমাদের দেশে গাড়ি তাড়াতাড়ি নষ্ট হবার একটাই কারণ হলো আমরা ঠিকভাবে গাড়ির যত্ন নিই না,পরবর্তীতে আমরা সেই গাড়ির কোম্পানিকে গালাগালি করি বা বাজে মন্তব্য করি সেই কোম্পানি নিয়ে।

একটি সহজ উদাহরন দিয়ে বোঝানোর চেষ্টা করছি।

আমরা খাবার খাই মুখ দিয়ে ।কিন্তু এখন যদি আপনাকে পেটের ভিতর পাইপ দিয়ে খাবার দেয়া হয় তবে কি আপনার ভালো লাগবে ??
মোটেও নয়া ।কারন এটি স্বাভাবিক সিস্টেম নয়। ঠিক তেমনি একটি গাড়ির জন্য ।যদি একটি গাড়িকে গ্যাস করে টাকা বাচানো যেতো তবে গাড়ি কোম্পানিগুলো কষ্ট করে হাইব্রিড গাড়ি নয়া বানিয়ে গ্যাস সিস্টেম করতো।

সবকিছুর একটি স্বাভাবিক নিয়ম রয়েছে । কিন্তু এই স্বাভাবিক নিয়মের বাহিরে কিছু করলে তখনই সমস্যা দেখা দেয়।

সি এন জি বা এল পি জি করলে গাড়ির ইঞ্জিনের সমস্যা হয় ।এমনকি চেক ইঞ্জিন লাইট প্রায় সময় জ্বলে থাকে । কারণ সি এন জি বা এল পি জি করার সময় ইঞ্জিনের মেইন ওয়ারিং কেতে লাইন দেয়া হয় তাই চেক ইঞ্জিন লাইট জ্বলে থাকে।

আমরা জানি গাড়ি যত বেশি হালকা রাখা যায় ততো বেশি মাইলেজ এবং গাড়ির পারফরমেন্স ভালো পাবেন। কিন্তু সি এন জি বা এল পি জি এর সিলিন্ডারের ভর প্রায় ৩০-৫০ কেজি হয়ে থাকে ।আর এই এক্সট্রা ভরের কারণে একটা সময় গাড়ীর সাস্পেন্সন ,রেক এবং এক্সেলের উপর প্রেশার পড়ে । তখন এই অংশগুলো ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যায়।

 সি এন জি বা এল পি জি যা অক্টেন বা ডিজেলের তুলনায় অত্যান্ত ঝুকির।কারন সি এন জি বা এল পি জি কিট বা সিলিন্ডার যদি কোনো কারণে লিক হয় তবে মারাত্মক দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।

সর্বশেষে যা বলবো সকল কিছুই আপনার ব্যক্তিগত ইচ্ছে। আমরা শুধু আপনার গাড়িকে কিভাবে কি করলে  ভালো রাখা যায় তার দিক নির্দেশনা দেয়ার চেষ্টা করেছি।

Back to list

Leave a Reply