Uncategorized

HAVAL H6 2022

বর্তমান বাজারে এস ইউ ভি গাড়ি প্রস্তুতিতে যেনো প্রতিযোগিতা চলছে। চাইনিজ মার্কেটের এস ইউ ভি আমাদের দেশে জনপ্রিয় হতে শুরু হয়েছে ।চায়নার GREAT WALL MOTOR (GWM) এর তৈরি HAVAL.  যার যাত্রা শুরু হয় ২০১১ সালের SHANGHAI AUTO SHOW  তে । গাড়িটির আগে নাম ছিলো   GREAT WALL  HAVAL H6 পরবর্তীতে এর নাম HAVAL H6  রাখা হয় ।এমনকি এটি চায়নাতে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয় ।

আপনার বাজেট ৪০-৪৫ লাখ হলে আপনি এই প্রিমিয়াম ফিচার’স যুক্ত গাড়িটি নিতে পারেন । আমাদের দেশে ৫ জনের আসন বিশিষ্ট  HAVAL H6 2022  সালের গাড়িটিও ব্যপক সাড়া প্রদান করেছে। এমনকি  SUV  কার হিসেবে এটির দাম টয়োটার SUV থেকে দাম SUV অনেক কম ,তাছাড়া রয়েছে আধুনিক সকল ফিচার’স।

গাড়িটির একটি শর্ট রিভিউ দেয়ার চেষ্টা করছি।

জেনে নিই কি কি ফিচার’স থাকছে এই গাড়িতেঃ

  • এই গাড়িতে রয়েছে ৪ সিলিন্ডার বিশিষ্ট, ১,৫ লিটার টার্বো  চার্জড ইঞ্জিন।যার ১৫১ হর্স পাওয়ার এবং ২৩০ নিউটন মিটার টর্ক উৎপন্ন করতে পারে।
  • রয়েছে প্যানোরেমিক অটো সান্রুফ ।
  • ৩৬০ ডিগ্রি 4k রেজুলেশন  ক্যামেরা আছে যা আপনি ডানে কিংবা বামে গেলে অটো অন হবে অর্থাৎ আপনি যদি ডানে যেতে চান অটোমেটিকালি ডান দিকের ক্যামেরা অন হয়ে যাবে ।এতে আপনি খুব সহজে ও নিরাপদে গাড়ি ঘুরাতে পারবেন।
  • গাড়িটির ড্যাশবোর্ডে রয়েছে আধুনিক ফিচার বিশিষ্ট সকল ফিচার। সাথে রয়েছে হেডস আপ ডিসপ্লে এবং ডিজিটাল ক্লাস্টার মিটার । ডিজিটাল ক্লাস্টার মিটারে আপনি নিজের পছন্দ অনুযায়ী থিম সেট করতে পারবেন।
  • ডিসপ্লেতে দেখতে পারবেন চাকার প্রেশার অর্থাৎ এই গাড়িতে রয়েছে টি পি এম এস ।
  • থাকছে স্পোর্টস কারের মতন প্যাডেল শিফটার।
  • একটি ওয়্যারলেস মোবাইল  চার্জার রয়েছে।
  • ইন্টেরিওর সিন্থেটিক লেদার দিয়ে তৈরি।
  • ১৮ ইঞ্চির রিম ও  ২২৫/৬০ সাইজের টায়ার রয়েছে যা গাড়িটিকে ভালোই গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স প্রদান করে।
  • সামনে ও পিছনে ডিস্ক ব্রেক আছে।
  • রিয়ার এসি ভেন্ট আছে । তার সাথে নিচে রয়েছে ২ টি ১২ ভোল্টের চার্জার পোর্ট।
  • ৭ ডি সি টি ট্রান্সমিশন 7-স্পীড ডুয়াল ক্লাচ ট্রান্সমিশন বিশেষ করে স্পোর্টি ড্রাইভিং পারফরম্যান্সকে সম্ভব করে তোলে।  এটি একটি ম্যানুয়াল ট্রান্সমিশনের চেয়ে ভাল এবং জালানির ব্যবহার হ্রাস করে । এমনকি গিয়ার শিফট হলেও আপনি টের পাবেন না ।

ডি সি টি ট্রান্সমিশন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে লিংকে ভিজিট করুনঃ https://bit.ly/3sozjtc

 এই গাড়ির সেইফটি ফিচারে যা যা  থাকছেঃ

  • ইমার্জেন্সি ব্রেক
  • লেইন অ্যাসিস্ট
  • ড্রাইভার এটেনশন মনিটরিং
  • ট্রাফিক সাইন রিকগনিশন
  • পার্কিং অ্যাসিস্ট
  • অটোমেটিক পার্কিং

এছাড়া আরও অনেক ফিচার’স রয়েছে এই গাড়িতে। এই গাড়িটি সিটি ড্রাইভিং এর সময় এভারেজ ৮-১০ কিঃমিঃ  এবং হাইওয়েতে ১২-১৪ কিঃ মিঃ মাইলেজ পেতে পারেন । আরেকটি কথা গাড়ির মাইলেজ সর্বদা নির্ভর করে ভালো জালানি, ড্রাইভিং স্টাইল ও রাস্তার জ্যামের উপর।

গাড়ির মাইলেজ সম্পর্কে জানতেঃ https://bit.ly/3K32KY2

ধন্যাবাদ

কারস ফিড বিডির সাথেই থাকুন

মনে রাখবেন,সময়ের চেয়ে জীবনের মূল্য বেশি

 তাই সাবধানে গাড়ি চালাবেন ভালো থাকবেন

Back to list

Leave a Reply